বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ০২:৩৭ পূর্বাহ্ন

হারের পথে বাংলাদেশ

স্পোর্টস ডেস্ক:: চট্টগ্রাম টেস্টে হারের পথে বাংলাদেশ। আজ শেষ হয়েছে ম্যাচের চতুর্থ দিনের খেলা। শনিবার দিনের শেষ সেশনে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসের ব্যাট করতে নেমে তিন উইকেট হারিয়ে ৮১ রান সংগ্রহ করে দিনের খেলা শেষ করেছে বাংলাদেশ। ম্যাচে স্বাগতিকরা এখনও পিছিয়ে ১১৯ রানে। রবিবার ম্যাচের শেষ দিন সকাল সাড়ে নয়টায় আবার ব্যাট করতে নামবে বাংলাদেশ।

ম্যাচে যে পরিস্থিতি তাতে হার এড়ানোটা বাংলাদেশের জন্য চ্যালেঞ্জই হবে। আজ ব্যাটিংয়ে নেমে তামিম ইকবাল ও ইমরুল কায়েস ওপেনিং জুটিতে ৫২ রানের পার্টনারশিপ গড়েন। দলীয় ৫২ রানে দিলরুয়ান পেরেরার বলে দিনেশ চান্দিমালের হাতে ক্যাচ হন ইমরুল কায়েস। তিনি করেন ১৯ রান।

দলীয় ৭৬ রানে লক্ষণ সান্দাকানের বলে উইকেটরক্ষকের হাতে ধরা পড়েন তামিম ইকবাল। তিনি করেন ৪১ রান। দিনের শেষ বলে রঙ্গনা হেরাথের বলে কুসল মেন্ডিসের হাতে ক্যাচ হন মুশফিকুর রহিম। ২০ বল খেলে ২ রান করেন তিনি। দিন শেষে ১৮ রান করে অপরাজিত থাকেন মুমিনুল হক।

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে গত বুধবার শুরু হয়েছে বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার মধ্যকার দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচ। প্রথম দিন টস জিতে ব্যাট করতে নামে বাংলাদেশ। বুধবার দিন শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ছিল চার উইকেট হারিয়ে ৩৭৪ রান।

বৃহস্পতিবার সকালে আবার ব্যাট করতে নামে বাংলাদেশ। প্রথম ইনিংসে ৫১৩ রান সংগ্রহ করে অলআউট হয়ে যায় স্বাগতিকরা। দলের পক্ষে মুমিনুল হক করেন ১৭৬ রান। মুশফিকুর রহিম করেন ৯২ রান। তামিম ইকবাল করেন ৫২ রান। ৮৩ রান করে অপরাজিত থাকেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। শ্রীলঙ্কার বোলারদের মধ্যে সুরঙ্গা লাকমল ৩টি, দিলরুয়ান পেরেরা ১টি, রঙ্গনা হেরাথ ৩টি ও লক্ষণ সান্দাকান ৩টি করে উইকেট নেন।

বৃহস্পতিবার শ্রীলঙ্কা তাদের প্রথম ইনিংসের ব্যাট করতে নামে। ব্যাট করতে নেমে দলীয় শূন্য রানে তারা প্রথম উইকেট হারায়। এরপর ধনঞ্জয়া ডি সিলভা ও কুসল মেন্ডিসের ব্যাটে এক উইকেট হারিয়ে ১৮৭ রান সংগ্রহ করে দিনের খেলা শেষ করে তারা।

শুক্রবার পুরো দিনই ব্যাট করে শ্রীলঙ্কা। গতকাল দিন শেষে সফরকারীদের সংগ্রহ ছিল তিন উইকেট হারিয়ে ৫০৪ রান। আজ দিনের শেষ সেশনে ইনিংস ডিক্লেয়ার করে শ্রীলঙ্কা। তখন তাদের সংগ্রহ নয় উইকেট হারিয়ে ৭১৩ রান। টেস্টে বাংলাদেশের বিপক্ষে শ্রীলঙ্কার এটি দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ইনিংস। এর আগে ২০১৪ সালে ঢাকায় বাংলাদেশের বিপক্ষে ৭৩০ রানের ইনিংস খেলেছিল শ্রীলঙ্কা।

শ্রীলঙ্কার এই বড় ইনিংস সংগ্রহের পথে তিন ব্যাটসম্যান সেঞ্চুরি করেন। দুই ব্যাটসম্যান হাফ সেঞ্চুরি করেন। ধনঞ্জয়া ডি সিলভা করেন ১৭৩ রান। কুসল মেন্ডিস করেন ১৯৬ রান। রোশেন সিলভা করেন ১০৯ রান। দিনেশ চান্দিমাল করেন ৮৭ রান। নিরোশান ডিকওয়েলা করেন ৬২ রান। শ্রীলঙ্কার যে নয়টি উইকেটের পতন হয়েছে তার মধ্যে তাইজুল ইসলাম ৪টি, মেহেদী হাসান মিরাজ ৩টি, সানজামুল ইসলাম ১টি ও মোস্তাফিজুর রহমান ১টি করে উইকেট নেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

চতুর্থ দিন শেষে বাংলাদেশ পিছিয়ে ১১৯ রানে।

বাংলাদেশ প্রথম ইনিংস: ৫১৩ (১২৯.৫ ওভার)

(তামিম ইকবাল ৫২, ইমরুল কায়েস ৪০, মুমিনুল হক ১৭৬, মুশফিকুর রহিম ৯২, লিটন দাস ০, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ৮৩*, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত ৮, মেহেদী হাসান মিরাজ ২০, সানজামুল ইসলাম ২৪, তাইজুল ইসলাম ১, মোস্তাফিজুর রহমান ৮; সুরঙ্গা লাকমল ৩/৬৮, লাহিরু কুমারা ০/৭৯, লাহিরু কুমারা ১/১১২, রঙ্গনা হেরাথ ৩/১৫০, লক্ষণ সান্দাকান ২/৯২, ধনঞ্জয়া ডি সিলভা ০/১২)।

শ্রীলঙ্কা প্রথম ইনিংস: ৭১৩/৯ডি (১৯৯.৩ ওভার)

(দিমুথ করুণারত্নে ০, কুসল মেন্ডিস ১৯৬, ধনঞ্জয়া ডি সিলভা ১৭৩, রোশেন সিলভা ১০৯, দিনেশ চান্দিমাল ৮৭, নিরোশান ডিকওয়েলা ৬২, দিলরুয়ান পেরেরা ৩২, রঙ্গনা হেরাথ ২৪, সুরঙ্গা লাকমল ৯, লাহিরু কুমারা ২*; মোস্তাফিজুর রহমান ১/১১৩, সানজামুল ইসলাম ১/১৫৩, মেহেদী হাসান মিরাজ ৩/১৭৪, তাইজুল ইসলাম ৪/২১৯, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত ০/২৪, মুমিনুল হক ০/৬, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ০/৭)।

বাংলাদেশ দ্বিতীয় ইনিংস: ৮১/৩* (২৬.৫ ওভার)

(তামিম ইকবাল ৪১, ইমরুল কায়েস ১৯, মুমিনুল হক ১৮*, মুশফিকুর রহিম ২; রঙ্গনা হেরাথ ১/২২, সুরঙ্গা লাকমল ০/১৬, ধনঞ্জয়া ডি সিলভা ০/২০, দিলরুয়ান পেরেরা ১/২০, লক্ষণ সান্দাকান ১/৩)।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2024  Ekusharkantho.com
Technical Helped by Titans It Solution