সোমবার, ১৭ Jun ২০২৪, ০১:৪৪ অপরাহ্ন

ফরিদপুরে কন্যাকে ধ-র্ষ-ণে-র অভিযোগের মামলায় অবশেষে পিতা গ্রেপ্তার

মো. সামাদ খান, ফরিদপুর প্রতিনিধি॥
ফরিদপুর সদর উপজেলার খলিলপুরে পিতার বিরুদ্ধে কিশোরী কন্যাকে ধ-র্ষ-ণে-র অভিযোগ উঠেছে। এতে গ-র্ভ-ব-তী হয়ে সম্প্রতী কন্যা সন্তানের জন্ম দিয়েছে ওই কিশোরী। এই ঘটনায় কিশোরীর মা বাদী হয়ে কোতয়ালী থানায় মামলা দায়ের করে।

মঙ্গলবার (২১ মে) পুলিশ অভিযুক্ত বাবাকে গ্রেপ্তার করেছে।

অভিযুক্ত বাবার নাম মো. নাছির শেখ (৪৫), পেশা রিকশা চালক। সোমবার রাতে মামলা দায়ের হলে মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১২ টার দিকে খলিলপুর এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।
এজাহার ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, কিশোরীর মা স্থানীয় একটি জুট মিলে কাজ করে। সেখানে মাঝে মাঝেই থাকে রাত্রিকালীন কাজ করতে হয়।

ওই সময়ে বাড়িতে ২ মেয়ে ও বাবা থাকতো। এক কক্ষে দুই মেয়ে অপর কক্ষে বাবা থাকতো। ২০২৩ সালের ১৫ মে যথারীতি সকলে ঘুমালে ওই কিশোরী কন্যাকে ডেকে নিজ কক্ষে নিয়ে যায় বাবা নাছির শেখ। পরে তার ইচ্ছের বিরুদ্ধে ধ-র্ষ-ণ করে। এসময় চিৎকার করলে ছ্যানদা (একধরনের ধারালো অস্ত্র) দিয়ে ভয় দেখায় মেয়েকে। এরপরে নিয়মিত চলতে থাকে ধর্ষণ। এক পর্যায়ে কিশোরী গ-র্ভ-ব-তী হয়ে পরলে বাবাকে জানায় সে। নাছির কিশোরীকে ছেলে হলে ঘরে রাখবে এবং মেয়ে হলে বেচে দিবে বলে জানায়।

গত ১৫ মে ওই কিশোরীর প্রসব বেদনা উঠলে তাকে ফরিদপুরের মাতৃ মঙ্গল হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। ওই দিনই কন্যা সন্তানের জন্ম দেয় ওই কিশোরী। ওই হাসপাতালেই একজনের কাছে কন্যা শিশুকে বিক্রি করে পরদিন বাড়ি যায় কিশোরী ও তার পরিবার। এসময় এলাকাবাসী বাচ্চা নিয়ে নানা প্রশ্ন করলে জানাজানি হয় ঘটনাটি।

পরে ফরিদপুর কোতয়ালী থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে প্রাথমিক তদন্ত করে। কিশোরীর বিক্রিত কন্যাকে উদ্ধার করে পরিবারের কাছে ফেরত দেয়। এরপরে ওই কিশোরীর মা বাদী হয়ে নাছির শেখের বিরুদ্ধে কোতয়ালী থানায় নারী শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন।

মামলার এজাহার হাতে পেয়ে মামলাটি রেকর্ড করে পুলিশ, একই সাথে গ্রেপ্তার করা হয় বাবা নাছির শেখকে।

এদিকে স্থানীয়দের বরাত দিয়ে পুলিশের একটি সূত্র জানায়, ভুক্তভুগি ওই কিশোরীর সাথে স্থানীয় আরো দুই ব্যাক্তির সাথে সম্পর্ক ছিলো। যদিও কিশোরী ও তার মা বাবাকে আসামি করেছে, কিন্তু পুলিশ বিষয়টি খতিয়ে দেখছে।

সাংবাদিকদের কাছে ভুক্তভুগি বিথি বলেন, এই ঘটনায় অন্য কেউ জড়িত না, শুধুমাএ তার বাবা তাকে ধ-র্ষ-ণ করেছে।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2024  Ekusharkantho.com
Technical Helped by Titans It Solution