বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ০২:৫২ পূর্বাহ্ন

দুনিয়াতে কল্যাণ ও আখিরাতে মুক্তি কামনায় শেষ হলো আখেরি মোনাজাত

ই-কণ্ঠ ডেস্ক রিপোর্ট:: দুনিয়াতে কল্যাণ ও আখিরাতে মুক্তি কামনায় শেষ হলো বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের আখেরি মোনাজাত। গাজীপুরের টঙ্গীর তুরাগ পাড়ে লাখো মুসল্লির অংশগ্রহণে আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করেন ঢাকার কাকরাইল মসজিদের আমির মাওলানা মোহাম্মদ জোবায়ের।

আজ রোববার বেলা ১০টা ২০ মিনিটে মোনাজাত শুরু হয়ে ১০ টা ৪৫ মিনিটে শেষ হয়।

আজকের আখেরি মোনাজাতের মাঝ দিয়ে শেষ হলো ২০১৮ সালের ৫৩ তম বিশ্ব ইজতেমা। এর আগে বাংলা ভাষায় হেদায়েতি বয়ান করেন মাওলানা আব্দুল মতিন।

আখেরি মোনাজাত উপলক্ষে বিশ্ব ইজতেমা ময়দান সংলগ্ন এলাকায় শনিবার রাত থেকে যানবাহন চলাচল নিয়ন্ত্রণ করবে জেলা পুলিশ।

শনিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার স্টেডিয়ামে পুলিশ কন্ট্রোল রুম সংলগ্ন মিডিয়া সেন্টারের সামনে এক ব্রিফিংয়ে গাজীপুরের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারম্নন অর রশীদ বলেন, রোববার বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের আখেরি মোনাজাত অনুষ্ঠিত হবে। ইজতেমায় অংশ নেয়া মুসলিস্নদের পাশাপাশি ঢাকা ও টঙ্গীসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে মুসল্লিরা আখেরি মোনাজাতে অংশ নিতে আসবেন। মুসলিমদের সুবিধার্থে শনিবার রাত ১২টা থেকে ইজতেমা মাঠ সংলগ্ন ঢাকার আব্দুল্লাহপুর, কামারপাড়া, গাজীপুরের ভোগড়া বাইপাস ও মীরেরবাজ পর্যন্ত যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে। মুসল্লিদের চলাচলের সুবিধার্থে ১৫টি শাটল বাস তাদের আনা-নেয়া করবে।

এদিকে, মওলানা সাদ কান্ধলভির প্রস্থানসহ তাবলিগের চলমান পরিস্থিতি নিয়ে টঙ্গীর বিশ্ব ইজতেমা ময়দানে দুপুর ২টায় সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেছিলেন ইজতেমার মুরব্বিরা। শনিবার সকালে ঢাকাসহ স্থানীয় সংবাদকর্মীদের জানিয়েছিলেন বিশ্ব ইজতেমার মুরব্বি প্রকৌশলী মো. মাহফুজ। পরে দুপুরের দিকে সংবাদ সম্মেলন স্থগিত করা হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, মুফতি নজরুল ইসলাম সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলবেন বলে জানিয়েছিলেন। পরে তা স্থগিত করা হয়েছে।

তাবলিগ জামাতের নেতৃত্ব নিয়ে দিলিস্নর মারকাজ এবং দেওবন্দ মাদ্রাসার মধ্যে সম্প্রতি দ্বন্দ্ব দেখা দেয়, যার প্রভাবেই বাংলাদেশ তাবলিগ জামাতের মধ্যেও তৈরি হয় বিভক্তি। এবারের বিশ্ব ইজতেমায় মওলানা সাদের বিরোধীরা তার ঢাকা আগমনের সময় বিমানবন্দরের সামনে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করেন। পরে তিনি ইজতেমায় যোগ না দিয়ে নিজ দেশ ভারতে ফেরত চলে যান।

দুই মুসল্লির মৃত্যু :

দ্বিতীয় পর্বের ইজতেমায় এসে শনিবার সকাল পর্যন্ত্ দুই মুসলিস্নর মৃতু্য হয়েছে। টঙ্গী সরকারি হাসপাতালের কন্ট্রোল রুমের দায়িত্বে থাকা সহকারী স্বাস্থ্য পরিদর্শক চিত্তরঞ্জন দাস বলেন, বার্ধক্যজনিত কারণে রাত ১টার দিকে মুসল্লির মোবারক হোসেন ওরফে মোহর আলী (৬৫) নিহত হন। তার বাড়ি জামালপুরের ইসলামপুরে। শ্বাসকষ্টজনিত কারণে শনিবার সকাল সোয়া ৬টার দিকে শহীদুল ইসলামের (৫৬) মৃত্যুবরণ করেছে। তার বাড়ি ঢাকার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জে।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2024  Ekusharkantho.com
Technical Helped by Titans It Solution