বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ১১:১১ অপরাহ্ন

দিনাজপুরে এসএসসি’র প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনায় আটক-৪

দেলোয়ার হোসেন বাদশা, চিরিরবন্দর (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ
দিনাজপুরের চিরিরবন্দরে এসএসসি পরীক্ষা শুরুর একঘন্টা আগেই পরীক্ষা কেন্দ্রের বাইরে ফাঁস হওয়ায় গণিত পরীক্ষার হুবুহু প্রশ্নপ্রত্র পরীক্ষার্থীদের কাছে সরবরাহ কালে খায়রুল ইসলাম (২৫) নামে এক যুবককে আটক করেছে উপজেলা প্রশাসন। আটকৃকৃত ওই যুবককে পুলিশের কাছে সোপর্দ করার পর তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী আরও ৩ জনকে আটক করেছে পুলিশ। আটককৃত খায়রুল ইসলাম চিরিরবন্দর উপজেলার গলাহার গ্রামের লতিফুর রহমানের ছেলে। সে দিনাজপুর সরকারী কলেজের অনার্স তৃতীয় বর্ষের ছাত্র। চলতি ২০১৮ সালের এসএসসি পরীক্ষায় ১০ ফেব্রুয়ারী শনিবার ছিলো গণিত বিষয়ের পরীক্ষা। পরীক্ষা শুরুর এক ঘন্টা আগেই খায়রুল ইসলাম চিরিরবন্দর পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রের সামনে স্মার্ট মোবাইল ফোনের মাধ্যমে গণিত পরীক্ষার হুবুহু প্রশ্নপত্র পরীক্ষার্থীদের কাছে সরবরাহের চেষ্টা করে। এসময় চিরিরবন্দর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা গোলাম রব্বানী তাকে হাতে-নাতে ধরে ফেলে পুলিশের কাছে সোপর্দ করে এবং মোবাইল ফোনটি কেড়ে নেয়। পরীক্ষা শুরু পর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোবাইল ফোনে সরবরাহকৃত প্রশ্নপত্রের সাথে পরীক্ষার প্রশ্নপত্রের হুবুহু মিল খুজে পায়। চিরিরবন্দর থানার ওসি হারেসুল ইসলাম জানান, আটককৃত খায়রুল ইসলামকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদের পর এর সাথে জড়িত আরও ৩ যুবককে দিনাজপুর শহর থেকে আটক করা হয়। তবে তদন্তের স্বার্থে পরে আটক ৩ যুবকের নাম জানায়নি পুলিশ। ওসি জানান, প্রশ্নপত্র ফাঁসের সাথে জড়িত চক্রকে আটক করার জন্য তারা জোর তৎপরতা চালাচ্ছেন। এই ঘটনায় প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগে চিরিরবন্দর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মঞ্জুরুল হক বাদী হয়ে চিরিরবন্দর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মঞ্জুরুল হক জানান, প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগে এই মামলা দায়ের করা হয়। এদিকে দিনাজপুরের খানসামা উপজেলায় পরীক্ষা শুরুর আগে উপজেলার গোয়ালডিহি উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে একই পদ্ধতিতে ফাঁস হওয়া প্রশ্নপত্র পরীক্ষার্থীদের কাছে সরবরাহ করার খবর পাওয়া গেছে।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2024  Ekusharkantho.com
Technical Helped by Titans It Solution