বুধবার, ২৪ Jul ২০২৪, ০৩:২৪ পূর্বাহ্ন

খুলনায় ইউপি চেয়ারম্যানকে গুলি করে হত্যা

ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ রবিউল ইসলাম রবি

খুলনা ব্যুরো:: খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলার শরাফপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ রবিউল ইসলাম রবিকে (৪৫) গুলি করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।

শনিবার রাত ১০ টার দিকে ডুমুরিয়া উপজেলার খুলনা-সাতক্ষীরা মহাসড়কের গুটুদিয়া ওয়াপদা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

ডুমুরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুকান্ত কুমার সাহা এ খবর নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, শনিবার সন্ধ্যায় উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় অংশগ্রহণ শেষে রাত সাড়ে ৮টার দিকে মোটরসাইকেল যোগে খুলনা নগরীর বাসায় ফিরছিলেন রবিউল ইসলাম। খুলনা সাতক্ষীরা মহাসড়কের গুটুদিয়া স্কুলের কাছে পৌঁছালে
একদল দুর্বৃত্ত তাকে লক্ষ্য করে গুলি করে। এ সময় গুলিবিদ্ধ হয়ে তিনি রাস্তায় পড়ে যান।

পরে স্থানীয়রা রবিউলকে উদ্ধার করে প্রথমে ডুমুরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে, পরে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক কনক হোসেন বলেন, ‘রাত সাড়ে ১০টার দিকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় রবিউলকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। কিন্তু পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখা যায়, হাসপাতালে আনার বেশ আগেই তিনি মারা গেছেন।’

খুলনার পুলিশ সুপার সাইদুর রহমান বলেন, ‘ঘটনার পরপরই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িতদের ধরতে অভিযান শুরু করেছে পুলিশ। কেন এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটল, তা তদন্ত ছাড়া বলা যাবে না।’

ডুমুরিয়া উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও যুবলীগের আহ্বায়ক গোবিন্দ ঘোষ জানান, ‘বিকাল পাঁচটায় বিশেষ বর্ধিত সভা শুরু হয়। সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে শেষ হয় ওই সভা। এরপর রবিউল আরও কয়েকজন ইউপি চেয়ারম্যানের সঙ্গে বাজারে বসে আড্ডা দিয়েছিলেন। পরে খুলনায় যাওয়ার পথে দুর্বৃত্তের গুলিতে নিহত হন।’

শরাফপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান শেখ রবিউল ইসলাম রবি উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য। এছাড়া তিনি খুলনা জেলা ছাত্রলীগের উপ পাঠাগার বিষয়ক সম্পাদক ছিলেন।

এর আগে ২০২১ সালে অনুষ্ঠিত ইউপি নির্বাচন এবং ২০১৬ সালের ইউপি নির্বাচনে তিনি আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে জয়লাভ করেন।

রবিউল ইসলামের বাড়ি শরফপুর ইউনিয়নে হলেও পরিবার নিয়ে থাকতেন খুলনা নগরের নিরালা আবাসিক এলাকায়। এর আগে ২০১৫ সালে একবার তিনি সন্ত্রাসী হামলার শিকার হন। সে বার বেঁচে ফিরলেও এবার রক্ষা পেলেন না দুর্বৃত্তের বুলেট থেকে।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2024  Ekusharkantho.com
Technical Helped by Titans It Solution