বুধবার, ২৪ Jul ২০২৪, ০২:৩৯ পূর্বাহ্ন

কেরানীগঞ্জে স্কুলের জমি দখল চেষ্টার প্রতিবাদে শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধ

কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ওসির আশ্বাসে তারা স্কুলে ফিরে যায়

কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি:: কেরানীগঞ্জের কালিন্দী ইউনিয়নে অবস্থিত ‘কেরানীগঞ্জ গার্লস স্কুল এন্ড কলেজ’ এর নামে কেনা জমি দখল চেষ্টার প্রতিবাদ জানিয়ে ঢাকা-নবাবগঞ্জ সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে শিক্ষার্থীরা।

রবিবার (৯ জুন) দুপুরে তারা সড়ক অবরোধ করে। পরে কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ওসির আশ্বাসে তারা স্কুলে ফিরে যায়। অবরোধের কারনে প্রায় ১০ মিনিট সড়কটিতে যান চলাচল বন্ধ ছিল।

কেরানীগঞ্জ গার্লস স্কুল এন্ড কলেজের প্রিন্সিপাল বিলকিস খন্দকার জানান, ঢাকা-নবাবগঞ্জ সড়কের এক পাশে আমাদের শিক্ষালয়। এখানে ২৩শ ছাত্রী পড়াশুনা করে। সড়কের উল্টোপাশে ৩৬ শতাংশ জমি ১৯৭৩ সালে আ: রব নামে এক ব্যক্তির কাছ থেকে স্কুলের নামে কেনা হয়। জমিটির রেকর্ডীয় মালিক শংকর চন্দ্র শীলের কাছ থেকে ১৯৫৭ সালে ইসরাফিল কিনে নেন। উনার কাছ থেকে ১৯৬৭ সালে কেনেন আ: রব। আমাদের কাছে সমস্ত দলিলপত্র আছে। ওই জমিতে দীর্ঘদিন ধরে স্কুলের সাইনবোর্ড লাগানো আছে।

তিনি অভিযোগ করেন, সম্প্রতি ওই জমির মালিকানা দাবি করেন কালিন্দী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হোসেন মোস্তান ও নজরুল ইসলাম নজর নেতৃত্বে একটি গ্রুপ। তারা নাকি রেকর্ডীয় মালিক শংকর চন্দ্র শীলের কোন নাতীর কাছ থেকে ওই জমি কিনেছেন। শনিবার দিবাগত মধ্যরাতে তাদের লোকজন জমিতে থাকা স্কুলের সাইনবোর্ড ফেলে দেয়। সকালে এই খবর চাউর হলে শিক্ষার্থীরা বিক্ষুব্ধ হয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে তারা স্কুলের বাইরে গিয়েও বিক্ষোভ করে। পরে প্রশাসনের লোকজনের আশ্বাসে ওরা স্কুলে ফিরে আসে।

প্রিন্সিপাল বলেন, আমরা বিষয়টি এসিল্যান্ড, ইউএনও ও উপজেলা চেয়ারম্যানকে জানিয়েছি। তারা দুপক্ষকে নিয়ে বসার কথা বলেছেন।

কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ওসি মোস্তফা কামাল বলেন, শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভে কিছু সময় সড়কে যান চলাচলে বিঘ্ন ঘটেছে। আমরা বুঝিয়ে শুনিয়ে কোমলমতি ছাত্রীদের স্কুলে ফেরত পাঠিয়েছি।

এবিষয়ে জানতে চাইলে কালিন্দী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হোসেন মোস্তান বলেন, উনারা যে অভিযোগ করছে তা সঠিক না। এ ব্যাপারে এসিল্যান্ড অফিসে আগামীকাল বসার কথা। সেখানেই প্রমান হবে কে সঠিক, কে সঠিক না।

এ ব্যাপারে কেরানীগঞ্জ (মডেল) এসিল্যান্ড (ভুমি) ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট সালাউদ্দিন আইয়ুবী বলেন, সালিশ বৈঠকের বিষয়ে আমি কিছু জানি না। তবে ওই জমি নিয়ে একটি পক্ষ (আবুল হোসেন মোস্তানের পক্ষ) মিসকেস দায়ের করেছে।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2024  Ekusharkantho.com
Technical Helped by Titans It Solution