বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ০১:৫৭ পূর্বাহ্ন

কাবুলের আত্মঘাতী হামলায় অ্যাম্বুলেন্সের ব্যবহার, নিহত বেড়ে ৪০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: কাবুলে আত্মঘাতী গাড়ি বোমা হামলায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৪০ জনে দাঁড়িয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে আরও অন্তত ১৪০ জন। আফগান স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম হতাহতের সংখ্যা জানিয়েছে। অ্যাম্বুলেন্স ব্যবহার করে চালানো ওই হামলার দায় স্বীকার করেছে জঙ্গিগোষ্ঠী তালেবান।

আজ শনিবার (২৭ জানুয়ারি) দুপুরের দিকে আবারও আত্মঘাতী বোমা হামলায় কেঁপে ওঠে আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের কেন্দ্রস্থল।

বেশ ক’টি আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম জানায়, আত্মঘাতী হামলাটি চালানো হয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পুরনো ভবনের ঠিক পাশেই। বিবিসি জানিয়েছে, সেখানে ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও হাই পিস কাউন্সিলের কার্যালয়ও রয়েছে। রয়েছে পুলিশের সদর দফতর আর বহু দেশের দূতাবাস।

বিবিসি জানিয়েছে, হামলাকারীরা একটি অ্যাম্বুলেন্সকে এই হামলার কাজে ব্যবহার করেছেন। অ্যাম্বুলেন্সে করে বিস্ফোরক নিয়ে এসে জনাকীর্ণ স্থানে বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। সে সময় ওই স্থানে রাস্তায় বহু লোকের ভিড় ছিল। প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে আল জাজিরা জানিয়েছে, ঘটনাস্থলে অন্তত তিনটি বিস্ফোরণের খবর পাওয়া গেছে। বিস্ফোরণ এতোটাই শক্তিশালী ছিল যে, শহরের সব স্থান থেকে আকাশে পেঁচিয়ে উঠতে থাকা ধোঁয়ার কুণ্ডলি উঠতে দেখা যায়।

সংবাদমাধ্যমগুলোকে ভীতিকর অভিজ্ঞতার বর্ণনা দিতে শুরু করেছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা। তারা বলছেন, আত্মঘাতী হামলাটি যখন চালানো হয় তখন রাস্তাটি লোকে লোকারণ্য ছিল। বহু সংখ্যক মানুষকে হত্যার উদ্দেশ্যেই এমন একটি সময় বেছে নিয়েছিল জঙ্গিরা। তালেবান এই হামলার দায় স্বীকার করেছে। তারা জানিয়েছে, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পুরনো এক কার্যালয়কে লক্ষ্যবস্তু বানিয়ে ওই হামলা চালানো হয়। ঠিক এক সপ্তাহ আগে কাবুলের একটি বিলাসবহুল হোটেলে তালেবান জঙ্গিদের হামলায় ২২ জনের মৃত্যু হয়। তাদের বেশিরভাগই ছিল বিদেশি।

বুধবার (২৪ জানুয়ারি) সকাল ৯ টার দিকে জালালাবাদে সেভ দ্য চিলড্রেনের কার্যালয়ের সামনে আত্মঘাতী গাড়িবোমা বিস্ফোরণে ২ জন নিহত হয়। জঙ্গি সংগঠন আইএস-এর পক্ষ থেকে হামলার দায় স্বীকার করে একটি বিবৃতি প্রকাশ করা হয়।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2024  Ekusharkantho.com
Technical Helped by Titans It Solution